মৃত্যু ফাঁদ ফেঞ্চুগঞ্জের মুক্তিযোদ্ধা উস্তার আলী সড়ক

আসিফ ইকবাল ইরন(ফেঞ্চুগঞ্জ):: সিলেটের ফেঞ্চুগঞ্জের উত্তর কুশিয়ারা ইউপির কটাল পুর রত্না নদীর উত্তর পার্শ্বে অবস্থিত সিলেট-ফেঞ্চুগঞ্জ সড়কের সাথে সংযুক্ত বীর মুক্তিযোদ্ধা উস্তার আলী সড়ক সংস্কারহীন খানাখন্দ ও অরক্ষিত রেলক্রসিং এর কারনে মৃত্যু ফাঁদে পরিনত হয়েছে।

বুধবার সরেজমিন ঘুরে দেখা যায়, সিলেট- মৌলভীবাজার মহাসড়ক থেকে মাঝপাড়া বড় মসজিদ পর্যন্ত প্রায় ১ কিলোমিটার সড়ক খানাখন্দভরা। সংস্কারহীন উঁচু-ঢালু সড়ক ও অরক্ষিত রেলক্রসিং এর কারনে প্রায় ছোট বড় দূর্ঘটনা ঘটে। এই রাস্তা দিয়ে প্রতিদিন শত শত মানুষ যাতায়াত করে। কিন্তু সড়কের বেহালদশার কারনে পথচারী ও যানবাহন চলাচলের সম্পূর্ণ অনুপযোগী হয়ে মরণফাঁদে পরিণত হয়েছে এই সড়কটি।

মৃত্যু ঝুঁকি নিয়ে রেলক্রসিং পার হচ্ছেন পথচারীরা

সড়কের এই বেহাল অবস্থার কারণে প্রায়ই দুর্ঘটনার সম্মুখীন হয় পথচারী সহ বিভিন্ন যানবাহন । দীর্ঘদিন থেকে প্রয়োজনীয় সংস্কারের অভাবে এ সড়কটি চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। মৃত্যুঝুঁকি নিয়ে চলাচল করছেন উত্তর কুশিয়ারা ইউপির মহিদপুর,মাঝপাড়া,তেরাকুড়ি ফকির পাড়া,পাঠানচক সহ কয়েকটি গ্রামের মানুষ।
বিশেষ করে রোগী পরিবহন ও শিক্ষার্থীদের যাতায়াতে চরম দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে এলাকাবাসীকে। বিশেষ করে এই সড়কে একটি অরক্ষিত রেলক্রসিং থাকায় ঝুকি নিয়ে চলাচল করছে মানুষ ও যানবাহন। ব্যস্ততম এই সড়কের ব্যরিকেড গেইট ও গেইটম্যানের দাবী এলাকাবাসীর।

আরও পড়ুন: ফেঞ্চুগঞ্জে অবৈধভাবে বিক্রি হচ্ছে গ্যাস সিলিন্ডার, প্রশাসন নিরব!

মহিদ পুর গ্রামের বাসিন্দা ব্যবসায়ী মফিজ উদ্দিন বলেন,কটাল পুর বাজারে আমার ব্যবসা প্রতিষ্টান থাকায় প্রতিদিন কয়েকবার মটর সাইকেল দিয়ে এই রাস্তায় চলাচল করতে হয়। কিন্তু মারাত্মক ঝুকিপূর্ন এই রাস্তা দিয়ে চলাচল করতে গিয়ে প্রায়ই দূর্ঘটনার সম্মুখীন হতে হয়।

শিক্ষার্থী আব্দুল ওয়াদুদ বলেন, উস্তার আলী সড়কটি দীর্ঘদিন ধরে সংস্কারহীন খানাখন্দভরা সড়ক ও অরক্ষিত রেলক্রসিং এর কারনে যাতায়াতকালে প্রায়ই দূর্ঘটনায় পতিত হতে হয়। তাই সংশ্লিষ্টদের কাছে রাস্তাটি সংস্কারের দাবী জানাচ্ছি।

স্থানীয় ইউপি সদস্য সোহেল আহমদ চৌধুরী হেলাল জানান, এলজিইডির আওতাধীন এই সড়ক সংস্কারের জন্য গত বছর প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে, কিন্তু প্রস্তাবটি কি কারনে পাস হয়নি জানা নেই।

এই বিষয়ে এলজিইডির উপ-প্রকোশলী ওয়াজিবুর রহমান বলেন, সড়কের সংস্কার কাজের প্রকল্পের অনুমোদনের জন্য মন্ত্রনালয় পাঠানো হয়েছে। অনুমোদন পেলে সড়কের সংস্কার কাজ শুরু হবে।